ঢাকা ০৩:৫০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৩, ১৪ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ




২০২২ সাল থেকে নবম-দশম শ্রেণিতে সমন্বিত কারিকুলাম চালু হবে

কালের ধারা ২৪ ডেস্ক :
  • প্রকাশিত : ১১:০২:০০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৯ নভেম্বর ২০২০ ৭৯৬ বার পঠিত
আজকের জার্নাল অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
print news

নবম-দশম শ্রেণিতে নতুন কারিকুলামে থাকছে না বিজ্ঞান, বাণিজ্য ও মানবিক বিভাগ।স্কুল পর্যায়ে সবার জন্য হবে সমন্বিত কারিকুলাম।যা ২০২২ সাল থেকে কার্যকর করা হবে।

১৯ নভেম্বর জাতীয় সংসদে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এ তথ্য জানান।

শিক্ষাক্রম পর্যালোচনা সাব-কমিটি ২০১৭ সালের ৩০ নভেম্বর ৮ দফা প্রস্তাব করেছিলো।প্রস্তাবে ষষ্ঠ থেকে ৮ম শ্রেণির শিক্ষাক্রম বিষয়বস্তুর গুরুত্ব অনুসারে তিন গুচ্ছে ভাগ করার জন্য পরামর্শ দেয়া হয়।৯ম-১০ম শ্রেণিতে ৫টি বাধ্যতামূলক বিষয় ছাড়া ‘গ’ গুচ্ছ থেকে ২টি ও ‘ঘ’ গুচ্ছ থেকে ৩টি বিষয় নিতে হবে।ফলে এসএসসি পরীক্ষায় ১৪টি থেকে ৪টি বিষয় কম যাবে।অর্থাৎ ঐচ্ছিক বিষয়সহ মোট ১০টি বিষয়ের পাবলিক পরীক্ষা হবে।

বিজ্ঞাপন

অধ্যাপক ড. এ কে এম রিয়াজুল হাসান (এনসিটিবি)সদস্য বলেন, ‘আগে প্রাথমিক ও মাধ্যমিকের জন্য পৃথক সময়ে কারিকুলাম পরিবর্তন হওয়ার কারণে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্তরের কারিকুলামে কোনো সমন্বয় থাকতো না।এবারই একসঙ্গে প্রাথমিক ও মাধ্যমিকের কারিকুলাম পরিমার্জন করা হচ্ছে।এতে শিক্ষার্থীদের ভোগান্তি হবে না।’

৮ম শ্রেণি পাস করে একজন শিক্ষার্থীর জন্য বিভাগ নির্ধারণ করা কতটা বোধগম্য এ বিষয়ে নানা প্রশ্ন আছে।এছাড়াও বিভাগ পরিবর্তনের ফলে একজন মানবিকের শিক্ষার্থীর যেমন বাণিজ্যের বিষয় সম্পর্কে ধারণা পায় না, তেমনি বিজ্ঞানের ছাত্রদের ইতিহাস জানা হয়ে উঠে না।সামগ্রিক ও জ্ঞান নির্ভর কার্যক্রমের জন্যই এ পরিবর্তন আনা হচ্ছে।

জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড চেয়ারম্যান নারায়ণ চন্দ্র সাহা গণমাধ্যমকে জানান, এই নতুন কারিকুলামটা হবে যোগ্যতা ভিত্তিক কারিকুলাম।

সূত্র: গণমাধ্যম।




ফেসবুকে আমরা







x

২০২২ সাল থেকে নবম-দশম শ্রেণিতে সমন্বিত কারিকুলাম চালু হবে

প্রকাশিত : ১১:০২:০০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৯ নভেম্বর ২০২০
print news

নবম-দশম শ্রেণিতে নতুন কারিকুলামে থাকছে না বিজ্ঞান, বাণিজ্য ও মানবিক বিভাগ।স্কুল পর্যায়ে সবার জন্য হবে সমন্বিত কারিকুলাম।যা ২০২২ সাল থেকে কার্যকর করা হবে।

১৯ নভেম্বর জাতীয় সংসদে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এ তথ্য জানান।

শিক্ষাক্রম পর্যালোচনা সাব-কমিটি ২০১৭ সালের ৩০ নভেম্বর ৮ দফা প্রস্তাব করেছিলো।প্রস্তাবে ষষ্ঠ থেকে ৮ম শ্রেণির শিক্ষাক্রম বিষয়বস্তুর গুরুত্ব অনুসারে তিন গুচ্ছে ভাগ করার জন্য পরামর্শ দেয়া হয়।৯ম-১০ম শ্রেণিতে ৫টি বাধ্যতামূলক বিষয় ছাড়া ‘গ’ গুচ্ছ থেকে ২টি ও ‘ঘ’ গুচ্ছ থেকে ৩টি বিষয় নিতে হবে।ফলে এসএসসি পরীক্ষায় ১৪টি থেকে ৪টি বিষয় কম যাবে।অর্থাৎ ঐচ্ছিক বিষয়সহ মোট ১০টি বিষয়ের পাবলিক পরীক্ষা হবে।

বিজ্ঞাপন

অধ্যাপক ড. এ কে এম রিয়াজুল হাসান (এনসিটিবি)সদস্য বলেন, ‘আগে প্রাথমিক ও মাধ্যমিকের জন্য পৃথক সময়ে কারিকুলাম পরিবর্তন হওয়ার কারণে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্তরের কারিকুলামে কোনো সমন্বয় থাকতো না।এবারই একসঙ্গে প্রাথমিক ও মাধ্যমিকের কারিকুলাম পরিমার্জন করা হচ্ছে।এতে শিক্ষার্থীদের ভোগান্তি হবে না।’

৮ম শ্রেণি পাস করে একজন শিক্ষার্থীর জন্য বিভাগ নির্ধারণ করা কতটা বোধগম্য এ বিষয়ে নানা প্রশ্ন আছে।এছাড়াও বিভাগ পরিবর্তনের ফলে একজন মানবিকের শিক্ষার্থীর যেমন বাণিজ্যের বিষয় সম্পর্কে ধারণা পায় না, তেমনি বিজ্ঞানের ছাত্রদের ইতিহাস জানা হয়ে উঠে না।সামগ্রিক ও জ্ঞান নির্ভর কার্যক্রমের জন্যই এ পরিবর্তন আনা হচ্ছে।

জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড চেয়ারম্যান নারায়ণ চন্দ্র সাহা গণমাধ্যমকে জানান, এই নতুন কারিকুলামটা হবে যোগ্যতা ভিত্তিক কারিকুলাম।

সূত্র: গণমাধ্যম।