ঢাকা ০১:৪৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২২ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ




১১ আগষ্ট থেকে বিধিনিষেধ শিথিল করা হবে

কালের ধারা ২৪ ডেস্ক :
  • প্রকাশিত : ০৪:৩৮:৪৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ৮ অগাস্ট ২০২১ ৩৫৩ বার পঠিত
আজকের জার্নাল অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
print news

চলতি মাসের ১১ আগস্ট (বুধবার) থেকে ধাপে ধাপে বিধিনিষেধ শিথিল করা হবে বলে জানিয়েছেন জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।

৮ আগস্ট(রবিবার) দুপুরে সচিবালয়ে প্রতিমন্ত্রীর দফতরে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

ফরহাদ হোসেন বলেন, কতটুক কিভাবে শিথিল করা হবে সেসব বিষয় প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা দিলেই জানাতে পারবো, আজ বা কালের মধ্যে প্রজ্ঞাপন জারি হতে পারে।

বিজ্ঞাপন

বিধিনিষেধ শিথিল নিয়ে তিনি আরও বলেন, কোনটি কখন খোলা হবে, কতটুকু পরিসরে খোলা হবে সেটা দেখতে হবে। তবে কঠোরভাবে যাতে স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালন হয় সেদিকে কঠোর ব্যবস্থা থাকবে।

‘আমরা মাস্ক পরার ওপর জোর দিয়েছি। আমাদের সকলকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। আগামী দিনে সবাইকে মাস্কও পরতে হবে কাজও করতে হবে। মাস্ক পরলে করোনা নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হবে।’

করোনার টিকার বিষয়ে ফরহাদ হোসেন বলেন, গতকাল (শনিবার) থেকে গণটিকা চালু হয়েছে, এটি ১২ তারিখ পর্যন্ত চলমান থাকবে। টিকা কার্যক্রমের মধ্যে দোকানদার, যাদের বাইরে যেতে হয়, ইমাম-মুয়াজ্জিন, ড্রাইভার-হেল্পারদের প্রায়োরিটি দিয়েছি। যাদের বাইরে আসতে হয় মানুষের সঙ্গে মিশতে হয় তাদের প্রায়োরিটি দিচ্ছি।

এছাড়া যারা সবজি ব্যবসায়ী, রিকশাচালকসহ যাদের বিভিন্ন কারণে মানুষের সংস্পর্শে আসতে হয় তাদেরও অগ্রাধিকার দিয়েছি। সেখানে বয়স্ক ও মুক্তিযোদ্ধাও আছে। মূলত অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড সচল রাখতে ও নিম্নআয়ের মানুষের কথা চিন্তা করেই বিধিনিষেধ ধাপে ধাপে শিথিল করা হবে বলে জানান তিনি।




ফেসবুকে আমরা




x

১১ আগষ্ট থেকে বিধিনিষেধ শিথিল করা হবে

প্রকাশিত : ০৪:৩৮:৪৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ৮ অগাস্ট ২০২১
print news

চলতি মাসের ১১ আগস্ট (বুধবার) থেকে ধাপে ধাপে বিধিনিষেধ শিথিল করা হবে বলে জানিয়েছেন জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।

৮ আগস্ট(রবিবার) দুপুরে সচিবালয়ে প্রতিমন্ত্রীর দফতরে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

ফরহাদ হোসেন বলেন, কতটুক কিভাবে শিথিল করা হবে সেসব বিষয় প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা দিলেই জানাতে পারবো, আজ বা কালের মধ্যে প্রজ্ঞাপন জারি হতে পারে।

বিজ্ঞাপন

বিধিনিষেধ শিথিল নিয়ে তিনি আরও বলেন, কোনটি কখন খোলা হবে, কতটুকু পরিসরে খোলা হবে সেটা দেখতে হবে। তবে কঠোরভাবে যাতে স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালন হয় সেদিকে কঠোর ব্যবস্থা থাকবে।

‘আমরা মাস্ক পরার ওপর জোর দিয়েছি। আমাদের সকলকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। আগামী দিনে সবাইকে মাস্কও পরতে হবে কাজও করতে হবে। মাস্ক পরলে করোনা নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হবে।’

করোনার টিকার বিষয়ে ফরহাদ হোসেন বলেন, গতকাল (শনিবার) থেকে গণটিকা চালু হয়েছে, এটি ১২ তারিখ পর্যন্ত চলমান থাকবে। টিকা কার্যক্রমের মধ্যে দোকানদার, যাদের বাইরে যেতে হয়, ইমাম-মুয়াজ্জিন, ড্রাইভার-হেল্পারদের প্রায়োরিটি দিয়েছি। যাদের বাইরে আসতে হয় মানুষের সঙ্গে মিশতে হয় তাদের প্রায়োরিটি দিচ্ছি।

এছাড়া যারা সবজি ব্যবসায়ী, রিকশাচালকসহ যাদের বিভিন্ন কারণে মানুষের সংস্পর্শে আসতে হয় তাদেরও অগ্রাধিকার দিয়েছি। সেখানে বয়স্ক ও মুক্তিযোদ্ধাও আছে। মূলত অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড সচল রাখতে ও নিম্নআয়ের মানুষের কথা চিন্তা করেই বিধিনিষেধ ধাপে ধাপে শিথিল করা হবে বলে জানান তিনি।