ঢাকা ০১:৫১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩, ১৮ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ




হামের প্রাদুর্ভাবে জিম্বাবুয়েতে ১৫৭ শিশুর মৃত্যু

কালের ধারা ২৪ ডেস্ক :
  • প্রকাশিত : ১২:১৮:২৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ অগাস্ট ২০২২ ১১১ বার পঠিত
আজকের জার্নাল অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
print news

হামের প্রাদুর্ভাবে জিম্বাবুয়েতে ১৫৭ শিশুর মৃত্যু

দেশটিতে সংক্রমণ বৃদ্ধির জন্য সরকার অ্যাপস্টোলিক গির্জা সম্প্রদায়কে দায়ী করে বলেছে, যারা টিকা নেয়নি হাম তাদের মধ্যেই ব্যাপকভাবে ছড়িয়েছে।

জিম্বাবুয়েতে হামের প্রাদুর্ভাবে ১৫৭ শিশুর মৃত্যু হয়েছে এবং এক সপ্তাহেরও কম সময়ের মধ্যে মৃতের সংখ্যা দ্বিগুণ হয়ে গেছে বলে দেশটির তথ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন।

এই সংক্রমণ বৃদ্ধির জন্য সরকার গত সপ্তাহে অ্যাপস্টোলিক গির্জা সম্প্রদায়কে দায়ী করে বলেছিল, যারা টিকা নেয়নি হাম তাদের মধ্যেই ব্যাপকভাবে ছড়িয়েছে

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর এক সংবাদ সম্মেলনে দেশটির তথ্যমন্ত্রী মোনিকা মোদিঙ্গুয়া জানান, দেশব্যাপী মোট সন্দেহভাজন আক্রান্তের সংখ্যা চার দিনে ১০৩৬ থেকে লাফিয়ে ২০৫৬ জনে দাঁড়িয়েছে।

এদের অধিকাংশই ছয় মাস থেকে ১৫ বছর বয়সী শিশু এবং একটি ধর্মীয় সম্প্রদায়ের যারা টিকায় বিশ্বাস করে না।

মোদিঙ্গুয়া বলেন, “এটি লক্ষ্য করা গেছে যে অধিকাংশ আক্রান্তই হামের টিকা নেয়নি। এই জরুরি পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য সরকার সিভিল প্রটেকশন ইউনিট অ্যাক্ট আহ্বান করেছে।”

তিনি জানান, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সেপ্টেম্বরে স্কুল খোলার আগেই টিকা কর্মসূচী জোরদার করেছে আর এ বিষয়ে ঐতিহ্যবাহী গোষ্ঠীগুলোর ও ধর্মীয় নেতাদের সমর্থন পাওয়া জন্য সরকার তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স বলছে, জিম্বাবুয়ের স্বাস্থ্য খাত ওষুধের অভাব ও স্বাস্থ্য কর্মীদের ধর্মঘটের কারণে দীর্ঘদিন ধরেই ভুগছে, এখন হামের প্রাদুর্ভাব খাতটির ওপর আরও চাপ সৃষ্টি করবে।




ফেসবুকে আমরা







x

হামের প্রাদুর্ভাবে জিম্বাবুয়েতে ১৫৭ শিশুর মৃত্যু

প্রকাশিত : ১২:১৮:২৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ অগাস্ট ২০২২
print news

হামের প্রাদুর্ভাবে জিম্বাবুয়েতে ১৫৭ শিশুর মৃত্যু

দেশটিতে সংক্রমণ বৃদ্ধির জন্য সরকার অ্যাপস্টোলিক গির্জা সম্প্রদায়কে দায়ী করে বলেছে, যারা টিকা নেয়নি হাম তাদের মধ্যেই ব্যাপকভাবে ছড়িয়েছে।

জিম্বাবুয়েতে হামের প্রাদুর্ভাবে ১৫৭ শিশুর মৃত্যু হয়েছে এবং এক সপ্তাহেরও কম সময়ের মধ্যে মৃতের সংখ্যা দ্বিগুণ হয়ে গেছে বলে দেশটির তথ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন।

এই সংক্রমণ বৃদ্ধির জন্য সরকার গত সপ্তাহে অ্যাপস্টোলিক গির্জা সম্প্রদায়কে দায়ী করে বলেছিল, যারা টিকা নেয়নি হাম তাদের মধ্যেই ব্যাপকভাবে ছড়িয়েছে

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর এক সংবাদ সম্মেলনে দেশটির তথ্যমন্ত্রী মোনিকা মোদিঙ্গুয়া জানান, দেশব্যাপী মোট সন্দেহভাজন আক্রান্তের সংখ্যা চার দিনে ১০৩৬ থেকে লাফিয়ে ২০৫৬ জনে দাঁড়িয়েছে।

এদের অধিকাংশই ছয় মাস থেকে ১৫ বছর বয়সী শিশু এবং একটি ধর্মীয় সম্প্রদায়ের যারা টিকায় বিশ্বাস করে না।

মোদিঙ্গুয়া বলেন, “এটি লক্ষ্য করা গেছে যে অধিকাংশ আক্রান্তই হামের টিকা নেয়নি। এই জরুরি পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য সরকার সিভিল প্রটেকশন ইউনিট অ্যাক্ট আহ্বান করেছে।”

তিনি জানান, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সেপ্টেম্বরে স্কুল খোলার আগেই টিকা কর্মসূচী জোরদার করেছে আর এ বিষয়ে ঐতিহ্যবাহী গোষ্ঠীগুলোর ও ধর্মীয় নেতাদের সমর্থন পাওয়া জন্য সরকার তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স বলছে, জিম্বাবুয়ের স্বাস্থ্য খাত ওষুধের অভাব ও স্বাস্থ্য কর্মীদের ধর্মঘটের কারণে দীর্ঘদিন ধরেই ভুগছে, এখন হামের প্রাদুর্ভাব খাতটির ওপর আরও চাপ সৃষ্টি করবে।