ঢাকা ০১:১৭ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২২ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ




যুক্তরাজ্যে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে-ম্যাট হ্যানকক

কালের ধারা ২৪ ডেস্ক :
  • প্রকাশিত : ১১:১১:২৫ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২১ ডিসেম্বর ২০২০ ৮৪০ বার পঠিত

স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাট হ্যানকক

আজকের জার্নাল অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
print news

যুক্তরাজ্যে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে-ম্যাট হ্যানকক

দেশেটিতে করোনার নতুন যে ধরন শনাক্ত হয়েছে তা নিয়ন্ত্রণে নেই জানিয়ে সবাইকে নতুন কঠোর বিধিনিষেধ মেনে চলার অনুরোধ জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাট হ্যানকক।

২০ ডিসেম্বর স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাট হ্যানকক বলেন, দ্রুত ছড়িয়ে পড়তে থাকা করোনা ভাইরাসের নতুন ষ্ট্রেইনের কারণে সরকারকে বড়দিনে বিধিনিষেধ শিথিলের পরিকল্পনা বাদ দিতে হয়েছে।কোভিড-১৯ সংক্রমণ লাফিয়ে বেড়ে যাওয়ার আলামত পেয়ে ১৯ ডিসেম্বর দ্রুতই বিধিনিষেধ জারি রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

বিজ্ঞাপন

করোনা ভাইরাসের নতুন ধরন ছড়িয়ে পড়া রোধে যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডনসহ দক্ষিণপূর্ব ইংল্যান্ডের বড় অংশজুড়ে এখন নতুন করে কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করা আছে।

ম্যাট হ্যানকক বলেন, সবাই বড়দিন পালনের নানা পরিকল্পনা করছেন।কিন্তু করোনা আরও বেশি সংক্রামক এবং আরও দ্রুত ছড়িয়ে পড়া ষ্ট্রেইনটি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেছে।তাই সরকারকে দ্রুত এবং বিস্তারিত গ্রহণ করতে হয়েছে।

করোনাভাইরাসের নতুন ধরনটি সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহ করতে দেশটির কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখা হচ্ছে বলে জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা(ডব্লিউএইচও)।

বিবিসির সূত্রে জানা যায়, করোনাভাইরাসের নতুন যে ধরন শনাক্ত হয়েছে সেটি মূল ভাইরাসের তুলনায় ৭০ শতাংশ বেশি দ্রুত ছড়ায়।

ডব্লিউএইচও জানিয়েছে, করোনাভাইরাসের এই নতুন ধরন একইভাবে নেদারল্যান্ডস, ডেনমার্ক এবং অষ্ট্রেলিয়ায় রূপ বদল করেছে।

আরও পড়ুন: করোনা টিকা দেয়ার পর ১১৯ দিন প্রতিরোধ ক্ষমতা শক্তিশালী থাকে




ফেসবুকে আমরা




x

যুক্তরাজ্যে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে-ম্যাট হ্যানকক

প্রকাশিত : ১১:১১:২৫ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২১ ডিসেম্বর ২০২০
print news

যুক্তরাজ্যে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে-ম্যাট হ্যানকক

দেশেটিতে করোনার নতুন যে ধরন শনাক্ত হয়েছে তা নিয়ন্ত্রণে নেই জানিয়ে সবাইকে নতুন কঠোর বিধিনিষেধ মেনে চলার অনুরোধ জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাট হ্যানকক।

২০ ডিসেম্বর স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাট হ্যানকক বলেন, দ্রুত ছড়িয়ে পড়তে থাকা করোনা ভাইরাসের নতুন ষ্ট্রেইনের কারণে সরকারকে বড়দিনে বিধিনিষেধ শিথিলের পরিকল্পনা বাদ দিতে হয়েছে।কোভিড-১৯ সংক্রমণ লাফিয়ে বেড়ে যাওয়ার আলামত পেয়ে ১৯ ডিসেম্বর দ্রুতই বিধিনিষেধ জারি রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

বিজ্ঞাপন

করোনা ভাইরাসের নতুন ধরন ছড়িয়ে পড়া রোধে যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডনসহ দক্ষিণপূর্ব ইংল্যান্ডের বড় অংশজুড়ে এখন নতুন করে কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করা আছে।

ম্যাট হ্যানকক বলেন, সবাই বড়দিন পালনের নানা পরিকল্পনা করছেন।কিন্তু করোনা আরও বেশি সংক্রামক এবং আরও দ্রুত ছড়িয়ে পড়া ষ্ট্রেইনটি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেছে।তাই সরকারকে দ্রুত এবং বিস্তারিত গ্রহণ করতে হয়েছে।

করোনাভাইরাসের নতুন ধরনটি সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহ করতে দেশটির কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখা হচ্ছে বলে জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা(ডব্লিউএইচও)।

বিবিসির সূত্রে জানা যায়, করোনাভাইরাসের নতুন যে ধরন শনাক্ত হয়েছে সেটি মূল ভাইরাসের তুলনায় ৭০ শতাংশ বেশি দ্রুত ছড়ায়।

ডব্লিউএইচও জানিয়েছে, করোনাভাইরাসের এই নতুন ধরন একইভাবে নেদারল্যান্ডস, ডেনমার্ক এবং অষ্ট্রেলিয়ায় রূপ বদল করেছে।

আরও পড়ুন: করোনা টিকা দেয়ার পর ১১৯ দিন প্রতিরোধ ক্ষমতা শক্তিশালী থাকে