ঢাকা ১০:৪৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম :




ময়মনসিংহের আনন্দ মোহন কলেজের হলগুলি বন্ধ ঘোষণা

কালের ধারা ২৪ ডেস্ক :
  • প্রকাশিত : ১২:৪৩:৫৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ৫ ডিসেম্বর ২০২১ ৪৭৮ বার পঠিত
কালের ধারা ২৪, অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
print news

দেশের ময়মনসিংহের আনন্দ মোহন কলেজের সব হল অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ। ছাত্রলীগের দুই পক্ষের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচির কারণে উত্তেজনা সৃষ্টি হওয়ায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।

গত শনিবার রাতে কলেজের অধ্যক্ষ মো. আমান উল্লা স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে এ সিদ্ধান্ত জানানো হয়। শনিবার রাত সাড়ে ৮টার মধ্যে ছেলেদের এবং আগামীকাল রোববার (৫ নভেম্বর) সকাল ৮টার মধ্যে মেয়েদের হল ত্যাগ করার নির্দেশ দেয়া হয়।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার রাতে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ আনন্দ মোহন কলেজ ছাত্রলীগ ইউনিটকে জেলার অধীনস্থ ঘোষণা করে। এরপর শনিবার সকাল থেকেই ছাত্রলীগের কিছু কর্মী আনন্দ মোহন কলেজ প্রাঙ্গণে অবস্থান নেন এবং কলেজ ছাত্রলীগ শাখাকে মহানগর শাখায় অন্তর্ভুক্ত করার দাবি জানিয়ে স্লোগান দিতে থাকেন।

এই নিয়ে দুপুরের দিকে ছাত্রলীগের অন্য একটি অংশ ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়। এসময় দুই গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া এবং হাতাহাতির ঘটনা ঘটে।




ফেসবুকে আমরা







x

ময়মনসিংহের আনন্দ মোহন কলেজের হলগুলি বন্ধ ঘোষণা

প্রকাশিত : ১২:৪৩:৫৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ৫ ডিসেম্বর ২০২১
print news

দেশের ময়মনসিংহের আনন্দ মোহন কলেজের সব হল অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ। ছাত্রলীগের দুই পক্ষের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচির কারণে উত্তেজনা সৃষ্টি হওয়ায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।

গত শনিবার রাতে কলেজের অধ্যক্ষ মো. আমান উল্লা স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে এ সিদ্ধান্ত জানানো হয়। শনিবার রাত সাড়ে ৮টার মধ্যে ছেলেদের এবং আগামীকাল রোববার (৫ নভেম্বর) সকাল ৮টার মধ্যে মেয়েদের হল ত্যাগ করার নির্দেশ দেয়া হয়।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার রাতে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ আনন্দ মোহন কলেজ ছাত্রলীগ ইউনিটকে জেলার অধীনস্থ ঘোষণা করে। এরপর শনিবার সকাল থেকেই ছাত্রলীগের কিছু কর্মী আনন্দ মোহন কলেজ প্রাঙ্গণে অবস্থান নেন এবং কলেজ ছাত্রলীগ শাখাকে মহানগর শাখায় অন্তর্ভুক্ত করার দাবি জানিয়ে স্লোগান দিতে থাকেন।

এই নিয়ে দুপুরের দিকে ছাত্রলীগের অন্য একটি অংশ ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়। এসময় দুই গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া এবং হাতাহাতির ঘটনা ঘটে।