ঢাকা ০১:০২ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ




মোহনগঞ্জ উপজেলা শিক্ষা অফিসারের অনিয়ম

মোহনগঞ্জ প্রতিনিধি:
  • প্রকাশিত : ১২:১০:১৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৫ জুলাই ২০২১ ৬৭৩ বার পঠিত
কালের ধারা ২৪, অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
print news

মোহনগঞ্জ প্রতিনিধি:  মোহনগঞ্জ উপজেলা শিক্ষা অফিসার জনাব দিপালি সরকার,  ২০২০/২১ অর্থ বছরের বিদ্যালয় উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের অর্থ উত্তোলন করে প্রধান শিক্ষকদের হিসাব নম্বরে না দিয়ে নিজের নামে বিডি করেছেন।  যা সম্পুর্ন বিধি বহির্ভূত!!

বিজ্ঞাপন

উপজেলার ৪৫ টি বিদ্যালয়ের রুটিন মেনটেইন্যাস এর জন্য প্রতিটিতে ৪০,০০০/ টাকা এবং ২৪ টি বিদ্যালয়ের ওয়াশব্লকের জন্য প্রতিটিতে ২০,০০০/- টাকা বরাদ্ধ ছিল। যা প্রায় সকল বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকগণ সুষ্টু ভাবে কাজ করা হয়েছে বলে সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসারগণ সরেজমিনে প্রত্যক্ষ করে অফিসে রিপোর্ট দেবার পরেও অজানা বা অসৎ উদ্দ্যেশ্যে জনাব দীপালি সরকার  টাকা উত্তোলন করার বিল ভাউচার পাস করে নিজ নামে বিডি করে নিয়েছেন।

যা সম্পুর্ন বিধি বহির্ভূত কাজ।

এছাড়াও তাঁর অনেক ধরনের অনিয়ম ও অদক্ষতার অভিযোগ রয়েছে  ভিন্ন জনের ভাষ্য অনুযায়ী জানা যায়!

এবিষয়ে দ্রুতই বিভাগীয় তদন্ত করে বিষয়টি সুরাহার জন্য দাবি করছেন ভুক্তভোগী কয়েকজন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক প্রধান শিক্ষক!
আরও পড়ুন: বাংলাদেশের সীমান্ত বন্ধ থাকবে ৩১ জুলাই পর্যন্ত




ফেসবুকে আমরা







x

মোহনগঞ্জ উপজেলা শিক্ষা অফিসারের অনিয়ম

প্রকাশিত : ১২:১০:১৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৫ জুলাই ২০২১
print news

মোহনগঞ্জ প্রতিনিধি:  মোহনগঞ্জ উপজেলা শিক্ষা অফিসার জনাব দিপালি সরকার,  ২০২০/২১ অর্থ বছরের বিদ্যালয় উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের অর্থ উত্তোলন করে প্রধান শিক্ষকদের হিসাব নম্বরে না দিয়ে নিজের নামে বিডি করেছেন।  যা সম্পুর্ন বিধি বহির্ভূত!!

বিজ্ঞাপন

উপজেলার ৪৫ টি বিদ্যালয়ের রুটিন মেনটেইন্যাস এর জন্য প্রতিটিতে ৪০,০০০/ টাকা এবং ২৪ টি বিদ্যালয়ের ওয়াশব্লকের জন্য প্রতিটিতে ২০,০০০/- টাকা বরাদ্ধ ছিল। যা প্রায় সকল বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকগণ সুষ্টু ভাবে কাজ করা হয়েছে বলে সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসারগণ সরেজমিনে প্রত্যক্ষ করে অফিসে রিপোর্ট দেবার পরেও অজানা বা অসৎ উদ্দ্যেশ্যে জনাব দীপালি সরকার  টাকা উত্তোলন করার বিল ভাউচার পাস করে নিজ নামে বিডি করে নিয়েছেন।

যা সম্পুর্ন বিধি বহির্ভূত কাজ।

এছাড়াও তাঁর অনেক ধরনের অনিয়ম ও অদক্ষতার অভিযোগ রয়েছে  ভিন্ন জনের ভাষ্য অনুযায়ী জানা যায়!

এবিষয়ে দ্রুতই বিভাগীয় তদন্ত করে বিষয়টি সুরাহার জন্য দাবি করছেন ভুক্তভোগী কয়েকজন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক প্রধান শিক্ষক!
আরও পড়ুন: বাংলাদেশের সীমান্ত বন্ধ থাকবে ৩১ জুলাই পর্যন্ত