ঢাকা ১২:০০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩, ১৮ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ




চলতি বছরের মার্চে ভারত থেকে বিদ্যুৎ আসবে : জ্বালারি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী

কালের ধারা ২৪ ডেস্ক :
  • প্রকাশিত : ১১:০৭:০১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩ জানুয়ারী ২০২৩ ৭৬ বার পঠিত
আজকের জার্নাল অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
print news

চলতি বছরের মার্চে ভারত থেকে বিদ্যুৎ আসবে : জ্বালারি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী

পাশ্ববর্তী দেশ ভারতের ঝাড়খণ্ডে নির্মাণাধীন আদানির বিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে আগামী মার্চে বাংলাদেশে বিদ্যুৎ আসবে বলে জানিয়েছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ভারত থেকে বাংলাদেশে বিদ্যুৎ দেওয়ার জন্য ডেডিকেটেড সঞ্চালন লাইন নির্মাণ করা হয়েছে। মার্চের মাঝামাঝি থেকে বিদ্যুৎ আমদানি করা সম্ভব হবে।

আজ মঙ্গলবার ভারতের ঝাড়খণ্ডে আদানি পাওয়ার লিমিটেড কর্তৃক নির্মাণাধীন ১ হাজার ৬০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে এসব বলেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

নসরুল হামিদ বলেন, প্রথম ইউনিট থেকে ৭৫০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ মার্চের মাঝামাঝি পাওয়া যেতে পারে। আগামী গ্রীষ্মের চাহিদা পূরণে আরও বিদ্যুৎ প্রয়োজন। জ্বালানির বিকল্প উৎসও আমরা খুঁজছি। সাশ্রয়ী মূল্যে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহকে অগ্রাধিকার দিয়ে কাজ করছি।

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের ৫ নভেম্বর বাংলাদেশের বিদ্যুৎ বিভাগ ও ভারতের আদানি পাওয়ার লিমিটেডের মধ্যে সই হওয়া চুক্তির আওতায় ভারতের ঝাড়খণ্ডে ৮০০ মেগাওয়াট করে দুটি বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ হচ্ছে। এই বিদ্যুৎ সঞ্চালনের জন্য ডেডিকেটেড সঞ্চালন লাইন নির্মাণ করা হয়েছে। বাংলাদেশের চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও বগুড়ায় দুটি সাবস্টেশন ও অন্যান্য সঞ্চালন কাজ পিজিসিবি নির্মাণ করেছে।

বিদ্যুৎ কেন্দ্র পরিদর্শনকালে অন্যন্যের মধ্যে বিদ্যুৎ সচিব মো. হাবিবুর রহমান ও বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের (পিডিবি) চেয়ারম্যান প্রকৌশলী মো. মাহবুবুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।




ফেসবুকে আমরা







x

চলতি বছরের মার্চে ভারত থেকে বিদ্যুৎ আসবে : জ্বালারি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিত : ১১:০৭:০১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩ জানুয়ারী ২০২৩
print news

চলতি বছরের মার্চে ভারত থেকে বিদ্যুৎ আসবে : জ্বালারি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী

পাশ্ববর্তী দেশ ভারতের ঝাড়খণ্ডে নির্মাণাধীন আদানির বিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে আগামী মার্চে বাংলাদেশে বিদ্যুৎ আসবে বলে জানিয়েছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ভারত থেকে বাংলাদেশে বিদ্যুৎ দেওয়ার জন্য ডেডিকেটেড সঞ্চালন লাইন নির্মাণ করা হয়েছে। মার্চের মাঝামাঝি থেকে বিদ্যুৎ আমদানি করা সম্ভব হবে।

আজ মঙ্গলবার ভারতের ঝাড়খণ্ডে আদানি পাওয়ার লিমিটেড কর্তৃক নির্মাণাধীন ১ হাজার ৬০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে এসব বলেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

নসরুল হামিদ বলেন, প্রথম ইউনিট থেকে ৭৫০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ মার্চের মাঝামাঝি পাওয়া যেতে পারে। আগামী গ্রীষ্মের চাহিদা পূরণে আরও বিদ্যুৎ প্রয়োজন। জ্বালানির বিকল্প উৎসও আমরা খুঁজছি। সাশ্রয়ী মূল্যে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহকে অগ্রাধিকার দিয়ে কাজ করছি।

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের ৫ নভেম্বর বাংলাদেশের বিদ্যুৎ বিভাগ ও ভারতের আদানি পাওয়ার লিমিটেডের মধ্যে সই হওয়া চুক্তির আওতায় ভারতের ঝাড়খণ্ডে ৮০০ মেগাওয়াট করে দুটি বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ হচ্ছে। এই বিদ্যুৎ সঞ্চালনের জন্য ডেডিকেটেড সঞ্চালন লাইন নির্মাণ করা হয়েছে। বাংলাদেশের চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও বগুড়ায় দুটি সাবস্টেশন ও অন্যান্য সঞ্চালন কাজ পিজিসিবি নির্মাণ করেছে।

বিদ্যুৎ কেন্দ্র পরিদর্শনকালে অন্যন্যের মধ্যে বিদ্যুৎ সচিব মো. হাবিবুর রহমান ও বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের (পিডিবি) চেয়ারম্যান প্রকৌশলী মো. মাহবুবুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।