ঢাকা ০৫:৫৭ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ




করোনার ১ম ও ২য় ডোজ টিকা শেষ হচ্ছে নভেম্বরে

কালের ধারা ২৪ ডেস্ক :
  • প্রকাশিত : ০২:০৫:৫৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ জুলাই ২০২২ ৬৭৫ বার পঠিত
কালের ধারা ২৪, অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
print news

করোনার ১ম ও ২য় ডোজ টিকা শেষ হচ্ছে নভেম্বরে

চলতি বছরের নভেম্বর মাস থেকে আর কোনো ব্যক্তিকে করোনাভাইরাসের টিকার ১ম ও ২য় ডোজ না দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। তবে আগামী এ সময়ের পর শুধুমাত্র বুস্টার বা তৃতীয় ডোজের জন্য উপযুক্ত ব্যক্তিরাই টিকা পাবেন।

বিজ্ঞাপন

আজ ২৬ জুলাই(মঙ্গলবার )স্বাস্থ্য অধিদফতরের টিকা ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্য সচিব শামসুল হক এ তথ্য জানান।

সারাদেশে বর্তমানে প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজের দেড় কোটি টিকা মজুত আছে জানিয়ে তিনি বলেন, যারা এখনো এই দুই ডোজ গ্রহণ করেননি, দ্রুত তাদের নিয়ে নেয়া উচিত। বিভিন্ন উৎস থেকে সংগ্রহ করা টিকার মেয়াদ নভেম্বরে শেষ হবে। কোনো টিকা ২১, কোনো টিকা ২৩, কোনো টিকা ৩০ নভেম্বরের পর আর ব্যবহার করা যাবে না।

আরও পড়ুন : গত ২৪ ঘন্টায় দেশে করোনায় নতুন আক্রান্ত ৫৪৮ জন

শামসুল হক বলেন, শুধুমাত্র এই টিকা কার্যক্রমের জন্য বাংলাদেশে এখন সংক্রমণের হার অনেক কম। কিন্তু পৃথিবীর অনেক দেশে অসংখ্য মানুষ করোনা সংক্রমণে আক্রান্ত হচ্ছে। বাংলাদেশের টিকা গ্রহীতার হার বেশি হওয়ার কারণে সংক্রমণ কম হচ্ছে। যারা টিকা নিয়েছেন, তাদের মধ্যেও যদি কেউ আক্রান্ত হন, তাদের মারাত্মক অবস্থা তৈরি হচ্ছে না। সিভিয়ারিটি অনেক কম হচ্ছে। যে কারণে আমাদের হাসপাতালে ভর্তির হারও অনেক কম, মৃত্যুর হারও অনেক কম।

মহামারী করোনাভাইরাসের সংক্রমণরোধে ৫ থেকে ১১ বছর বয়সী শিশুদের টিকাদান আগামী আগস্ট মাস থেকে শুরু হবে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর।




ফেসবুকে আমরা







x

করোনার ১ম ও ২য় ডোজ টিকা শেষ হচ্ছে নভেম্বরে

প্রকাশিত : ০২:০৫:৫৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ জুলাই ২০২২
print news

করোনার ১ম ও ২য় ডোজ টিকা শেষ হচ্ছে নভেম্বরে

চলতি বছরের নভেম্বর মাস থেকে আর কোনো ব্যক্তিকে করোনাভাইরাসের টিকার ১ম ও ২য় ডোজ না দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। তবে আগামী এ সময়ের পর শুধুমাত্র বুস্টার বা তৃতীয় ডোজের জন্য উপযুক্ত ব্যক্তিরাই টিকা পাবেন।

বিজ্ঞাপন

আজ ২৬ জুলাই(মঙ্গলবার )স্বাস্থ্য অধিদফতরের টিকা ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্য সচিব শামসুল হক এ তথ্য জানান।

সারাদেশে বর্তমানে প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজের দেড় কোটি টিকা মজুত আছে জানিয়ে তিনি বলেন, যারা এখনো এই দুই ডোজ গ্রহণ করেননি, দ্রুত তাদের নিয়ে নেয়া উচিত। বিভিন্ন উৎস থেকে সংগ্রহ করা টিকার মেয়াদ নভেম্বরে শেষ হবে। কোনো টিকা ২১, কোনো টিকা ২৩, কোনো টিকা ৩০ নভেম্বরের পর আর ব্যবহার করা যাবে না।

আরও পড়ুন : গত ২৪ ঘন্টায় দেশে করোনায় নতুন আক্রান্ত ৫৪৮ জন

শামসুল হক বলেন, শুধুমাত্র এই টিকা কার্যক্রমের জন্য বাংলাদেশে এখন সংক্রমণের হার অনেক কম। কিন্তু পৃথিবীর অনেক দেশে অসংখ্য মানুষ করোনা সংক্রমণে আক্রান্ত হচ্ছে। বাংলাদেশের টিকা গ্রহীতার হার বেশি হওয়ার কারণে সংক্রমণ কম হচ্ছে। যারা টিকা নিয়েছেন, তাদের মধ্যেও যদি কেউ আক্রান্ত হন, তাদের মারাত্মক অবস্থা তৈরি হচ্ছে না। সিভিয়ারিটি অনেক কম হচ্ছে। যে কারণে আমাদের হাসপাতালে ভর্তির হারও অনেক কম, মৃত্যুর হারও অনেক কম।

মহামারী করোনাভাইরাসের সংক্রমণরোধে ৫ থেকে ১১ বছর বয়সী শিশুদের টিকাদান আগামী আগস্ট মাস থেকে শুরু হবে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর।