ঢাকা ০৭:৫১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২৫ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ




আফগানিস্তানে মার্কিন দূত জালমে খলিলজাদ পদত্যাগ করছেন

কালের ধারা ২৪ ডেস্ক :
  • প্রকাশিত : ০২:০৮:৪৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১ ৩১৬ বার পঠিত
আজকের জার্নাল অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
print news

আফগানিস্তানে মার্কিন দূত জালমে খলিলজাদ পদত্যাগ করছেন

চলতি সপ্তাহেই আফগানিস্তানে মার্কিন দূত জালমে খলিলজাদ পদত্যাগ করছেন। সাবেক প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সময় থেকে তিনি এ দায়িত্ব পেয়েছিলেন। মঙ্গলবার ডয়চে ভেলে জানায়, তিন বছর দায়িত্ব পালন শেষে চলতি সপ্তাহেই পদ থেকে সরে দাঁড়াবেন খলিলজাদ।

বাইডেন প্রশাসনেও তিনি এ দায়িত্ব পালন করে এসেছেন। তার স্থলাভিষিক্ত হচ্ছেন টমাস ওয়েস্ট। খলিলজাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি ট্রাম্পের আমলে তালেবানের উপর যথেষ্ট চাপ সৃষ্টি করতে পারেননি।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এন্থনি ব্লিংকেন তার কাজের জন্য খলিলজাদকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। তিনি বলেন, খলিলজাদ কয়েক দশক ধরে যুক্তরাষ্ট্রের মানুষের সেবা করেছেন।

বিজ্ঞাপন

কিছুদিন আগে দোহায় তালেবানের সঙ্গে আলোচনা করেছিলেন মার্কিন কূটনীতিকরা। সেখানে খলিলজাদকে রাখা হয়নি। তবে সাম্প্রতিক সময়ে তিনিই ছিলেন আফগানিস্তানের বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রধান কূটনীতিক।

সোমবার মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে মার্কিন কংগ্রেসকে জানানো হয়, আফগানিস্তান থেকে বিশৃঙ্খলভাবে সেনা প্রত্যাহার করা নিয়ে তদন্ত শুরু হয়েছে। বিশেষ অভিবাসন ভিসা দেয়া নিয়েও তদন্ত হবে।

আফগানরা গত ২০ বছর ধরে যুক্তরাষ্ট্রকে সাহায্য করেছিলেন, তাদের এ ভিসা দেয়া হয়েছে। তাদের জরুরি ভিত্তিতে যুক্তরাষ্ট্রে এনে পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

চলতি বছরের ১৫ আগস্ট কাবুলে ক্ষমতায় আসে তালেবান। এ প্রেক্ষাপটে অনেকটা তড়িঘড়ি করে যুক্তরাষ্ট্রকে সেনা ও নাগরিকদের দেশে ফিরিয়ে নিতে হয়েছে। এতে কাবুল বিমানবন্দরে চরম বিশৃঙ্খলা দেখা দেয়। পরিস্থিতির জন্য যুক্তরাষ্ট্রের রিপাবলিকান দলের আইনপ্রণেতারা প্রেসিডেন্ট বাইডেনের কঠোর সমালোচনা করেছেন।

ট্যাগস :




ফেসবুকে আমরা







x

আফগানিস্তানে মার্কিন দূত জালমে খলিলজাদ পদত্যাগ করছেন

প্রকাশিত : ০২:০৮:৪৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১
print news

আফগানিস্তানে মার্কিন দূত জালমে খলিলজাদ পদত্যাগ করছেন

চলতি সপ্তাহেই আফগানিস্তানে মার্কিন দূত জালমে খলিলজাদ পদত্যাগ করছেন। সাবেক প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সময় থেকে তিনি এ দায়িত্ব পেয়েছিলেন। মঙ্গলবার ডয়চে ভেলে জানায়, তিন বছর দায়িত্ব পালন শেষে চলতি সপ্তাহেই পদ থেকে সরে দাঁড়াবেন খলিলজাদ।

বাইডেন প্রশাসনেও তিনি এ দায়িত্ব পালন করে এসেছেন। তার স্থলাভিষিক্ত হচ্ছেন টমাস ওয়েস্ট। খলিলজাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি ট্রাম্পের আমলে তালেবানের উপর যথেষ্ট চাপ সৃষ্টি করতে পারেননি।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এন্থনি ব্লিংকেন তার কাজের জন্য খলিলজাদকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। তিনি বলেন, খলিলজাদ কয়েক দশক ধরে যুক্তরাষ্ট্রের মানুষের সেবা করেছেন।

বিজ্ঞাপন

কিছুদিন আগে দোহায় তালেবানের সঙ্গে আলোচনা করেছিলেন মার্কিন কূটনীতিকরা। সেখানে খলিলজাদকে রাখা হয়নি। তবে সাম্প্রতিক সময়ে তিনিই ছিলেন আফগানিস্তানের বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রধান কূটনীতিক।

সোমবার মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে মার্কিন কংগ্রেসকে জানানো হয়, আফগানিস্তান থেকে বিশৃঙ্খলভাবে সেনা প্রত্যাহার করা নিয়ে তদন্ত শুরু হয়েছে। বিশেষ অভিবাসন ভিসা দেয়া নিয়েও তদন্ত হবে।

আফগানরা গত ২০ বছর ধরে যুক্তরাষ্ট্রকে সাহায্য করেছিলেন, তাদের এ ভিসা দেয়া হয়েছে। তাদের জরুরি ভিত্তিতে যুক্তরাষ্ট্রে এনে পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

চলতি বছরের ১৫ আগস্ট কাবুলে ক্ষমতায় আসে তালেবান। এ প্রেক্ষাপটে অনেকটা তড়িঘড়ি করে যুক্তরাষ্ট্রকে সেনা ও নাগরিকদের দেশে ফিরিয়ে নিতে হয়েছে। এতে কাবুল বিমানবন্দরে চরম বিশৃঙ্খলা দেখা দেয়। পরিস্থিতির জন্য যুক্তরাষ্ট্রের রিপাবলিকান দলের আইনপ্রণেতারা প্রেসিডেন্ট বাইডেনের কঠোর সমালোচনা করেছেন।