ঢাকা ০৯:২৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২৫ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ




আজ হাসন রাজার ১৬৬তম জন্মদিন

কালের ধারা ২৪ ডেস্ক :
  • প্রকাশিত : ১২:২৫:৪০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২১ ডিসেম্বর ২০২০ ১০১২ বার পঠিত
আজকের জার্নাল অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
print news

আজ হাসন রাজার ১৬৬তম জন্মদিন

হাসন রাজা ১৮৫৪ সালের ২১ ডিসেম্বর সুনামগঞ্জ শহরের নিকটে সুরমা নদীর তীরে লক্ষণশ্রী পরগণার তেঘরিয়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।

মরমী সাধক হাসন রাজা ছিলেন জমিদার পরিবারের সন্তান।তার পিতা দেওয়ান আলী রাজা চৌধুরী ছিলেন প্রতাপশালী জমিদার।তার ৩য় পুত্র হাছন রাজা।

হাসন রাজার পূর্বপুরুষেরা হিন্দু ছিলেন।তাদেরই একজন বীরেন্দ্রচন্দ্র সিংহদের মতান্তরে বাবু রায় চৌধুরী ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন।হাছন রাজার পূর্বপুরুষদের আধিবাস ছিল অয্যোধ্যায়।সিলেটে আসার পূর্বে তারা দক্ষিণবঙ্গের যশোর জেলার কাগদি নামক গ্রামের অধিবাসী ছিলেন।

বিজ্ঞাপন

তৎকালীন সময়ে সিলেটে আরবী-ফার্সির চর্চা খুব প্রবল ছিল।সিলেটে ডেপুটি কমিশনার অফিসের নাজির আবদুল্লাহ নাজির এক বিখ্যাত ফার্সি ভাষাভিজ্ঞ ব্যক্তির পরামর্শে তার নামকরণ করা হয় হাসন রাজা।বহু দলিল দস্তাবেজে হাসন রাজা আরবি অক্ষরে দস্তখত করেছেন।হাসন দেখতে সুদর্শন ছিলেন।অধিকাংশ বিশেষজ্ঞের মতে তিনি কোন প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা লাভ করেননি।তবে তিনি ছিলেন স্বশিক্ষিত।তিনি সহজ-সরল সুরে আঞ্চলিক ভাষায় প্রায় সহস্রাধিক গান রচনা করেন।

হাসন রাজা, ‘স্ত্রী হইল পায়ের বেড়ি পুত্র হইল খিল’, ‘গুড্ডি উড়াইল মোরে, মৌলার হাতের ডুরি’, ‘যমের দূতে আসিয়া তোমার হাতে দিবে দড়ি’, ‘আমি যাইমুরে যাইমু, আল্লার সঙ্গে’, সহ অসংখ্যা জনপ্রিয় ও কালজয়ী গান লিখে ইতিহাস সৃষ্টি করেছেন।

হাসন রাজার চিন্তাভাবনার পরিচয় পাওয়া যায় তার গানে।তিনি কত গান রচনা করেছেন তার সঠিক হিসাব পাওয়া যায়নি।১৯০৭ সালে তার রচিত ২০৬টি গান নিয়ে একটি সংকলন প্রকাশিত হয়।এ সংকলনটির নাম ছিল ‘হাছন উদাস’।এর বাইরে আরও কিছু গান ‘হাছন রাজার তিনপুরুষ’ এবং ‘আল ইসলাহ্’সহ বিভিন্ন পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে।

হাছন রাজা ১৯২২ সালের ৭ই ডিসেম্বর মৃত্যুবরণ করেন।সুনামগঞ্জ পৌর এলাকাধীণ গাজরি দরগা নামক পারিবারিক কবরস্থানে রয়েছে তার সমাধি।তার কবরটি তিনি মৃত্যুর আগেই নিজে প্রস্তুত করেছিলেন।

আজকের এই দিনে কালের ধারা ২৪ পরিবার তাঁকে শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করছে।




ফেসবুকে আমরা







x

আজ হাসন রাজার ১৬৬তম জন্মদিন

প্রকাশিত : ১২:২৫:৪০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২১ ডিসেম্বর ২০২০
print news

আজ হাসন রাজার ১৬৬তম জন্মদিন

হাসন রাজা ১৮৫৪ সালের ২১ ডিসেম্বর সুনামগঞ্জ শহরের নিকটে সুরমা নদীর তীরে লক্ষণশ্রী পরগণার তেঘরিয়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।

মরমী সাধক হাসন রাজা ছিলেন জমিদার পরিবারের সন্তান।তার পিতা দেওয়ান আলী রাজা চৌধুরী ছিলেন প্রতাপশালী জমিদার।তার ৩য় পুত্র হাছন রাজা।

হাসন রাজার পূর্বপুরুষেরা হিন্দু ছিলেন।তাদেরই একজন বীরেন্দ্রচন্দ্র সিংহদের মতান্তরে বাবু রায় চৌধুরী ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন।হাছন রাজার পূর্বপুরুষদের আধিবাস ছিল অয্যোধ্যায়।সিলেটে আসার পূর্বে তারা দক্ষিণবঙ্গের যশোর জেলার কাগদি নামক গ্রামের অধিবাসী ছিলেন।

বিজ্ঞাপন

তৎকালীন সময়ে সিলেটে আরবী-ফার্সির চর্চা খুব প্রবল ছিল।সিলেটে ডেপুটি কমিশনার অফিসের নাজির আবদুল্লাহ নাজির এক বিখ্যাত ফার্সি ভাষাভিজ্ঞ ব্যক্তির পরামর্শে তার নামকরণ করা হয় হাসন রাজা।বহু দলিল দস্তাবেজে হাসন রাজা আরবি অক্ষরে দস্তখত করেছেন।হাসন দেখতে সুদর্শন ছিলেন।অধিকাংশ বিশেষজ্ঞের মতে তিনি কোন প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা লাভ করেননি।তবে তিনি ছিলেন স্বশিক্ষিত।তিনি সহজ-সরল সুরে আঞ্চলিক ভাষায় প্রায় সহস্রাধিক গান রচনা করেন।

হাসন রাজা, ‘স্ত্রী হইল পায়ের বেড়ি পুত্র হইল খিল’, ‘গুড্ডি উড়াইল মোরে, মৌলার হাতের ডুরি’, ‘যমের দূতে আসিয়া তোমার হাতে দিবে দড়ি’, ‘আমি যাইমুরে যাইমু, আল্লার সঙ্গে’, সহ অসংখ্যা জনপ্রিয় ও কালজয়ী গান লিখে ইতিহাস সৃষ্টি করেছেন।

হাসন রাজার চিন্তাভাবনার পরিচয় পাওয়া যায় তার গানে।তিনি কত গান রচনা করেছেন তার সঠিক হিসাব পাওয়া যায়নি।১৯০৭ সালে তার রচিত ২০৬টি গান নিয়ে একটি সংকলন প্রকাশিত হয়।এ সংকলনটির নাম ছিল ‘হাছন উদাস’।এর বাইরে আরও কিছু গান ‘হাছন রাজার তিনপুরুষ’ এবং ‘আল ইসলাহ্’সহ বিভিন্ন পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে।

হাছন রাজা ১৯২২ সালের ৭ই ডিসেম্বর মৃত্যুবরণ করেন।সুনামগঞ্জ পৌর এলাকাধীণ গাজরি দরগা নামক পারিবারিক কবরস্থানে রয়েছে তার সমাধি।তার কবরটি তিনি মৃত্যুর আগেই নিজে প্রস্তুত করেছিলেন।

আজকের এই দিনে কালের ধারা ২৪ পরিবার তাঁকে শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করছে।