ঢাকা ০৫:১৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ




আগষ্ট মাসে সিলেটে সবচেয়ে কম আত্মহত্যার প্রবণতা ২.৫% ঘটেছে

আবুল কাশেম রুমন,সিলেট:
  • প্রকাশিত : ১২:৫৫:৪০ অপরাহ্ন, রবিবার, ১০ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ৩০১ বার পঠিত
কালের ধারা ২৪, অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
print news

আগষ্ট মাসে সিলেটে সবচেয়ে কম আত্মহত্যার প্রবণতা ২.৫% ঘটেছে

আবুল কাশেম রুমন,সিলেট: সিলেট কমিয়ে এসেছে আগের চেয়ে আত্মহত্যার প্রবণতা। যার পলে প্রবণতার হার দাড়িয়েছে ২.৫%। চলতি বছরের ৮ মাসে দেশী দেশে ৩৬১ জন শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছে বলে জানিয়েছে  বেসরকারি সংস্থা ‘আঁচল ফাউন্ডেশন’। জানুয়ারি থেকে আগস্ট পর্যন্ত সময়ে তারা আত্মহত্যা করেন। তাদের মধ্যে স্কুল শিক্ষার্থী ১৬৯ জন, কলেজ শিক্ষার্থী ৯৬ জন, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী ৬৬ জন এবং মাদ্রাসা শিক্ষার্থী ৩০ জন। ২০২২ সালের ৮ মাসে আত্মহত্যার সংখ্যা ছিল ৩৬৪ জন।

বিজ্ঞাপন

সমীক্ষার তথ্য বলছে, গত ৮ মাসে গড়ে প্রতি মাসে প্রায় ৪৫.১৩ জন শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করে। আর ৩৬১ জন শিক্ষার্থীর মাঝে ছেলে শিক্ষার্থী ১৪৭ জন, আর মেয়ে শিক্ষার্থী ছিল ২১৪ জন।

সমীক্ষায় জানানো হয়, ২০২৩ সালের আগস্ট পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে ঢাকা বিভাগে। এ বিভাগে আত্মহত্যা করে ৩১.৩০%। খুলনা বিভাগে আত্মহত্যা করে ১৩% এবং চট্টগ্রাম বিভাগে আত্মহত্যা করে ১৪.১০%। রংপুরে বিভাগে আত্মহত্যা করে ৮.৯০%, ময়মনসিংহে আত্মহত্যা করে ১০%, রাজশাহীতে আত্মহত্যা করে ১১.৯০% এবং বরিশালে আত্মহত্যা করে ৮.৩০%। এছাড়া সিলেটে আত্মহত্যা করে ২.৫%।

জানা গেছে, আত্মহত্যার প্রবণতা সবচেয়ে বেশি নারী শিক্ষার্থীদের। চলতি বছর আত্মহত্যা করা ৩৬১ জনের মধ্যে ৫৯.৩০% শিক্ষার্থী মেয়ে। বাকি ৪০.৭০% শিক্ষার্থী ছেলে।

নারী শিক্ষার্থীদেও বেশি আত্মহত্যার কারণ খতিয়ে দেখা যায়, ২৬.৬০% নারী শিক্ষার্থী অভিমান করে, প্রেম ঘটিত কারণে ১৮.৭০%, মানসিক ভারসাম্যহীনতার কারণে ৮.৪০%, পারিবারিক বিবাদের কারণে ৯.৮০%, যৌন হয়রানির কারণে ৫.১০% এবং পড়াশোনার চাপ ও ব্যর্থতার কারণে ১২.৬০% শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছে।

জানা গেছে, আত্মহত্যাকারী শিক্ষার্থীদের শিক্ষার স্তর বিবেচনায় দেখা যায় সবচেয়ে বেশি আত্মহত্যা করেছে স্কুলগামী শিক্ষার্থীরা। মোট আত্মহত্যাকারী শিক্ষার্থীদের ৪৬.৮% ছিল স্কুলগামী। এদের মধ্যে মেয়ে শিক্ষার্থী ছিল ১১২ জন এবং ছেলে শিক্ষার্থী ছিল ৫৭ জন। এছাড়া আত্মহত্যাকারীদের মধ্যে কলেজগামী শিক্ষার্থী ছিল ২৬.৬০%। বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী ছিল ১৮.৩০% এবং আত্মহননকারীদের মাঝে মাদ্রাসার শিক্ষার্থী রয়েছে ৮.৩১%।

চলতি বছরে ৩৬১ জন শিক্ষার্থীদের মাঝে ৩০ জন মাদ্রাসার শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছে। এদের মধ্যে মেয়ে শিক্ষার্থী ছিল ৫৩.৩০%। আর ছেলে শিক্ষার্থীদের আত্মহত্যার হার ছিল ৪৬.৭০%। মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের ৪০% আত্মহত্যার  পেছনে কারণ ছিল অভিমান। আর প্রেম ঘটিত সম্পর্কের জন্য আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছে ১৩.৩০% এবং ১০% আত্মহত্যার পেছনে দায়ী যৌন নির্যাতন।




ফেসবুকে আমরা







x

আগষ্ট মাসে সিলেটে সবচেয়ে কম আত্মহত্যার প্রবণতা ২.৫% ঘটেছে

প্রকাশিত : ১২:৫৫:৪০ অপরাহ্ন, রবিবার, ১০ সেপ্টেম্বর ২০২৩
print news

আগষ্ট মাসে সিলেটে সবচেয়ে কম আত্মহত্যার প্রবণতা ২.৫% ঘটেছে

আবুল কাশেম রুমন,সিলেট: সিলেট কমিয়ে এসেছে আগের চেয়ে আত্মহত্যার প্রবণতা। যার পলে প্রবণতার হার দাড়িয়েছে ২.৫%। চলতি বছরের ৮ মাসে দেশী দেশে ৩৬১ জন শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছে বলে জানিয়েছে  বেসরকারি সংস্থা ‘আঁচল ফাউন্ডেশন’। জানুয়ারি থেকে আগস্ট পর্যন্ত সময়ে তারা আত্মহত্যা করেন। তাদের মধ্যে স্কুল শিক্ষার্থী ১৬৯ জন, কলেজ শিক্ষার্থী ৯৬ জন, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী ৬৬ জন এবং মাদ্রাসা শিক্ষার্থী ৩০ জন। ২০২২ সালের ৮ মাসে আত্মহত্যার সংখ্যা ছিল ৩৬৪ জন।

বিজ্ঞাপন

সমীক্ষার তথ্য বলছে, গত ৮ মাসে গড়ে প্রতি মাসে প্রায় ৪৫.১৩ জন শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করে। আর ৩৬১ জন শিক্ষার্থীর মাঝে ছেলে শিক্ষার্থী ১৪৭ জন, আর মেয়ে শিক্ষার্থী ছিল ২১৪ জন।

সমীক্ষায় জানানো হয়, ২০২৩ সালের আগস্ট পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে ঢাকা বিভাগে। এ বিভাগে আত্মহত্যা করে ৩১.৩০%। খুলনা বিভাগে আত্মহত্যা করে ১৩% এবং চট্টগ্রাম বিভাগে আত্মহত্যা করে ১৪.১০%। রংপুরে বিভাগে আত্মহত্যা করে ৮.৯০%, ময়মনসিংহে আত্মহত্যা করে ১০%, রাজশাহীতে আত্মহত্যা করে ১১.৯০% এবং বরিশালে আত্মহত্যা করে ৮.৩০%। এছাড়া সিলেটে আত্মহত্যা করে ২.৫%।

জানা গেছে, আত্মহত্যার প্রবণতা সবচেয়ে বেশি নারী শিক্ষার্থীদের। চলতি বছর আত্মহত্যা করা ৩৬১ জনের মধ্যে ৫৯.৩০% শিক্ষার্থী মেয়ে। বাকি ৪০.৭০% শিক্ষার্থী ছেলে।

নারী শিক্ষার্থীদেও বেশি আত্মহত্যার কারণ খতিয়ে দেখা যায়, ২৬.৬০% নারী শিক্ষার্থী অভিমান করে, প্রেম ঘটিত কারণে ১৮.৭০%, মানসিক ভারসাম্যহীনতার কারণে ৮.৪০%, পারিবারিক বিবাদের কারণে ৯.৮০%, যৌন হয়রানির কারণে ৫.১০% এবং পড়াশোনার চাপ ও ব্যর্থতার কারণে ১২.৬০% শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছে।

জানা গেছে, আত্মহত্যাকারী শিক্ষার্থীদের শিক্ষার স্তর বিবেচনায় দেখা যায় সবচেয়ে বেশি আত্মহত্যা করেছে স্কুলগামী শিক্ষার্থীরা। মোট আত্মহত্যাকারী শিক্ষার্থীদের ৪৬.৮% ছিল স্কুলগামী। এদের মধ্যে মেয়ে শিক্ষার্থী ছিল ১১২ জন এবং ছেলে শিক্ষার্থী ছিল ৫৭ জন। এছাড়া আত্মহত্যাকারীদের মধ্যে কলেজগামী শিক্ষার্থী ছিল ২৬.৬০%। বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী ছিল ১৮.৩০% এবং আত্মহননকারীদের মাঝে মাদ্রাসার শিক্ষার্থী রয়েছে ৮.৩১%।

চলতি বছরে ৩৬১ জন শিক্ষার্থীদের মাঝে ৩০ জন মাদ্রাসার শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছে। এদের মধ্যে মেয়ে শিক্ষার্থী ছিল ৫৩.৩০%। আর ছেলে শিক্ষার্থীদের আত্মহত্যার হার ছিল ৪৬.৭০%। মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের ৪০% আত্মহত্যার  পেছনে কারণ ছিল অভিমান। আর প্রেম ঘটিত সম্পর্কের জন্য আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছে ১৩.৩০% এবং ১০% আত্মহত্যার পেছনে দায়ী যৌন নির্যাতন।