ঢাকা ১২:২১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২২ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ




অস্ট্রেলিয়ায় করোনার নতুন ধরণ ‘ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট’ দ্রুত ছড়াচ্ছে

কালের ধারা ২৪ ডেস্ক :
  • প্রকাশিত : ০২:০০:৩৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৮ জুন ২০২১ ৪১০ বার পঠিত
আজকের জার্নাল অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
print news

অস্ট্রেলিয়ায় মহামারি করোনা ভাইরাসের নতুন ধরণ উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন ‘ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের’ অস্তিত্ব পাওয়া গেছে, যা দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে।২৮ জুন(সোমবার) ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদনে এই তথ্য পাওয়া গেছে।

অস্ট্রেলিয়ার কেবল সিডনি শহরে ১২৮ জন শণাক্ত হয়েছেন, যাদের দেহে পাওয়া গেছে করোনার নতুন এ ধরণের সন্ধান। এ কারণে শহরটিকে লকডাউনের আওতায় আনা হয়েছে। শহরটির ৫০ লাখ বাসিন্দাকে ঘরের ভেতরে অবস্থান করতে বলা হয়েছে।

সিডনি ছাড়াও দেশটির উত্তরাঞ্চল, কুইন্সল্যান্ড ও পশ্চিমাঞ্চলে ছড়িয়ে পড়ছে করোনার নতুন ধরণ। সে সব এলাকায় এখন পর্যন্ত অল্প সংখ্যক করোনা পজিটিভ শণাক্ত হলেও ব্যাপক হারে ছড়ানোর উচ্চ ঝুঁকি রয়েছে। বেশ কয়েক মাসের মধ্যে অস্ট্রেলিয়ার বিভিন্ন অংশে একসঙ্গে এটাই প্রথম করোনা ভাইরাসের সংক্রমন বাড়ার ঘটনা।

বিজ্ঞাপন

আসন্ন করোনা পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে অস্ট্রেলীয় সরকার। এ পরিস্থিতি আজ সোমবার (২৮ জুন)অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসনের সঙ্গে বৈঠক করবেন কয়েকটি অঙ্গরাজ্যের নেতারা। অস্ট্রেলিয়ার এক উচ্চ পর্যায়ের সরকারি কর্মকর্তা জানান, তাদের দেশ কোভিড মোকাবেলায় ‘জটিল পরিস্থিতি’র মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। কারণ করোনা মোকাবেলায় ইতোমধ্যে বেশ কয়েকটি অঙ্গরাজ্য তাদের সীমান্ত বন্ধ করে দিয়েছে। এ ছাড়া নানা বিধিনিষেধও ইতোমধ্যে আরোপ করা হয়েছে।

অস্ট্রেলিয়ার ট্রেজারার জন ফ্রাইডেনবার্গ এবিসি নিউজকে বলেন, ‘আমি মনে করি, অধিক সংক্রমন ক্ষমতা সম্পন্ন ডেল্টা স্ট্র্যাইনের মাধ্যমে আমরা মহামারির নতুন ধাপে প্রবেশ করছি।’

মহামারি করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় ইতোমধ্যে অস্ট্রেলিয়ার বেশ কয়েকটি অঙ্গরাজ্যে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। লকডাউনের আওতায় রয়েছে সিডনি ও ডারউইন। এ ছাড়া আরও চারটি অঙ্গরাজ্যে বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। এসব শহরের মধ্যে সবচেয়ে জটিল পরিস্থিতিতে রয়েছে সিডনি। সেখানে প্রায় ৫০ লাখ মানুষকে ঘরে থাকতে কঠোর নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।
আরও পড়ুন: শিক্ষক নিয়োগে আর কোন বাধা নেই-হাইকোর্টের আদেশ বাতিল




ফেসবুকে আমরা




x

অস্ট্রেলিয়ায় করোনার নতুন ধরণ ‘ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট’ দ্রুত ছড়াচ্ছে

প্রকাশিত : ০২:০০:৩৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৮ জুন ২০২১
print news

অস্ট্রেলিয়ায় মহামারি করোনা ভাইরাসের নতুন ধরণ উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন ‘ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের’ অস্তিত্ব পাওয়া গেছে, যা দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে।২৮ জুন(সোমবার) ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদনে এই তথ্য পাওয়া গেছে।

অস্ট্রেলিয়ার কেবল সিডনি শহরে ১২৮ জন শণাক্ত হয়েছেন, যাদের দেহে পাওয়া গেছে করোনার নতুন এ ধরণের সন্ধান। এ কারণে শহরটিকে লকডাউনের আওতায় আনা হয়েছে। শহরটির ৫০ লাখ বাসিন্দাকে ঘরের ভেতরে অবস্থান করতে বলা হয়েছে।

সিডনি ছাড়াও দেশটির উত্তরাঞ্চল, কুইন্সল্যান্ড ও পশ্চিমাঞ্চলে ছড়িয়ে পড়ছে করোনার নতুন ধরণ। সে সব এলাকায় এখন পর্যন্ত অল্প সংখ্যক করোনা পজিটিভ শণাক্ত হলেও ব্যাপক হারে ছড়ানোর উচ্চ ঝুঁকি রয়েছে। বেশ কয়েক মাসের মধ্যে অস্ট্রেলিয়ার বিভিন্ন অংশে একসঙ্গে এটাই প্রথম করোনা ভাইরাসের সংক্রমন বাড়ার ঘটনা।

বিজ্ঞাপন

আসন্ন করোনা পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে অস্ট্রেলীয় সরকার। এ পরিস্থিতি আজ সোমবার (২৮ জুন)অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসনের সঙ্গে বৈঠক করবেন কয়েকটি অঙ্গরাজ্যের নেতারা। অস্ট্রেলিয়ার এক উচ্চ পর্যায়ের সরকারি কর্মকর্তা জানান, তাদের দেশ কোভিড মোকাবেলায় ‘জটিল পরিস্থিতি’র মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। কারণ করোনা মোকাবেলায় ইতোমধ্যে বেশ কয়েকটি অঙ্গরাজ্য তাদের সীমান্ত বন্ধ করে দিয়েছে। এ ছাড়া নানা বিধিনিষেধও ইতোমধ্যে আরোপ করা হয়েছে।

অস্ট্রেলিয়ার ট্রেজারার জন ফ্রাইডেনবার্গ এবিসি নিউজকে বলেন, ‘আমি মনে করি, অধিক সংক্রমন ক্ষমতা সম্পন্ন ডেল্টা স্ট্র্যাইনের মাধ্যমে আমরা মহামারির নতুন ধাপে প্রবেশ করছি।’

মহামারি করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় ইতোমধ্যে অস্ট্রেলিয়ার বেশ কয়েকটি অঙ্গরাজ্যে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। লকডাউনের আওতায় রয়েছে সিডনি ও ডারউইন। এ ছাড়া আরও চারটি অঙ্গরাজ্যে বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। এসব শহরের মধ্যে সবচেয়ে জটিল পরিস্থিতিতে রয়েছে সিডনি। সেখানে প্রায় ৫০ লাখ মানুষকে ঘরে থাকতে কঠোর নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।
আরও পড়ুন: শিক্ষক নিয়োগে আর কোন বাধা নেই-হাইকোর্টের আদেশ বাতিল